ম্যাজিক প্যারাডাইস

ঢাকাবাসির জন্য ঢাকার আশেপাশে ঘুরতে যাবার জায়গা খুবিই কম। এই তীব্র গরমে ঢাকাবাসী যখন হাঁসফাঁস করতে থাকে তখন ওয়াটার ওয়ার্ল্ড হতে পারে একবেলার ট্যুরের জন্য অসাধারণ জায়গা। আমরা খুজতে ছিলাম শুক্র-শনিবার কোথায় দিনে যেয়ে দিনে ফিরে আসা যায়। এই গ্রুপের পোস্ট থেকেই জানা এই ম্যাজিক প্যারাডাইস এর ব্যাপারে। তাই হুট করেই গত শুক্রবার সকালে ঠিক করে ফেললাম যাবো।

যাতায়াতঃ

কমলাপুর থেকে বাস নিবেন কুমিল্লার জন্য তবে কুমিল্লাগামি সব বাস কিন্তু ম্যাজিক প্যারাডাইস এর রাস্তায় যায় না। ম্যাজিক প্যারাডাইস কুমিল্লার কোটবাড়িতে অবস্থিত তাই ওখানে যাবার জন্য জাঙ্গালিয়া যাবার বাস নিবেন। এসি বাস ২৫০ টাকা, নন-এসি ২০০ টাকা। আমি সাজেস্ট করবো এসিতেই যান। রাস্তা ভালো হয়ে যাবার জন্য এখন খুব কম সময় লাগে তবে জ্যাম না থাকায় নন-এসি বাসগুলো পাগলের মত চালায়। বিশেষ করে তিশা তো এনার ভায়রা ভাই। এদের তুলোনায় এসি বাস গুলো অনেক ভালো চালায়। জীবন একটাই ভাই, শুধুশুধু কেন রিক্স নিবেন? এরপর কোটাবাড়ি বিশ্বরোডে নেমে যাবেন। সেখান থেকে সিএনজি পাওয়া যায়। দরদাম করে নিবেন তবে সাধারণত ১০০ টাকা করেই নেয়।

টিকেট

ম্যাজিক প্যারাডাইস নেমেই মনে হবে আপনি অন্য কোন দুনিয়াতে চলে এসেছেন। গেটটাই অনেক সুন্দর, একটা ডিজনিওয়ার্ল্ড ফিলিন্স দিবে (যদিওবা ডিজনি ওয়ার্ল্ড যাওয়া হয় নাই এখনো)। এরপর টিকিট কাউন্টারে যেয়ে অবশ্যই ফামিলি প্যাকেজ নিবেন। ফ্যামিলি প্যাকেজের নিতে চাইলে ৫ জন লাগবে কিন্তু আমরা দুইজন হবার পরও রিকোয়াস্ট করায় ফ্যামিলি প্যাকেজই নিতে পারছি। ফ্যামিলি প্যাকেজ ৫০০ টাকা, এটাতে থাকে এন্ট্রি+ওয়াটার ওয়ার্ল্ড+ পছন্দ মত ৩টা রাইড। শুধু এন্ট্রি নেয়া লস আবার শুধু ওয়াটার ওয়ার্ল্ড নেয়াতেও তেমন ফায়দা নেই।

Image may contain: cloud, sky and outdoor

রাইডঃ

রাইড কিন্তু খুব বেশি নেই কারণ এখনো কাজ চলছে পার্কটিতে। আমরা মোট ৪ টা রাইড এ উঠেছিলাম।

রেলঃ মাত্র ১ মিনিট ৪০ সেকেন্ডের মত রাইড। স্লো, খুব কম জায়গা নিয়ে করা তাই আশেপাশে দেখার ও তেমন কিছু পাবেন না (শুধু টানেল থেকে বের হলে প্যারাডাইস এর অসাধারণ ভিউটা বাদ দিয়ে)। তাই এটা ওঠা লস।

ফেরিস হুইলঃ এখানে উঠলে আপনার দুনিয়া স্লোমোশনে চলে যাবে। আমার দেখা মতে সব থেকে স্লো ফেরিস হুইল। উপর থেকে ভিউটা সুন্দর তবে উঠা নামার মাঝে কোন পার্থক্য খুজে পাবেন না এই স্লোস্পিডের কারনে।

পাইরেট শিপঃ অবশ্যই শিপের দুই মাথায় বসবেন, না হলে থ্রিলটা পাবেনই না। পয়সা উসুল হবে এটাতে। তবে যাদের মোশন সিকনেস আছে তাদের না উঠাই ভালো।

কার বাম্পিংঃ এটা বেস্ট লাগছে আমার কাছে। ২ মিনিটের বেশি সময় এর রাইড এবং কার গুলো এখনো নতুন হওয়াতে ভালো কন্ডিশিনে আছে আর স্পিডও বেশি। তবে ফ্রেন্ডরা হলে বাম্পিং করে মজা নাহলে কিছু বেরশিক মানুষ বিরক্ত হয়।

Image may contain: sky and outdoor

ওয়াটার ওয়ার্ল্ডঃ
স্পেস যথেষ্ট বড়। তাই গায়ে গায়ে ধাক্কা লাগার মত অবস্থা হয় না। আগে আসি স্লাইড এর কথায়। ফ্যান্টাসি/নন্দনের মত স্লাইডে টিউব বা ম্যাট সাপোর্ট দেয় না তাই মাঝামাঝিতে আটকে যাবেন আমার মত। আর ভুলেও কটনের ড্রেস পরে যাবেন না, পরলে স্লাইডের মাঝামাঝিতে হ্যাং হয়ে যাবেন। সিন্থেটিক বেস্ট হবে এই স্লাইডের জন্য।

ওয়েভ পুলটা বড়, ডিজের মিউজিকের সাথে সাথে বড় বড় ওয়েভে লাফ-ঝাপ-ড্যান্স করতে ভালোই লাগবে। সিকিউরিটি ভালো আছে। আশেপাশের কিছু খুচরো লোকজন জ্বালাতে আসলে তারা সাথে সাথে ব্যাবস্থা নেয়।

লকার আছে ১০০ টাকার দিয়ে আপনার দরকারি জিনিশপত্র রাখতে পারেন। চেঞ্জ রুমটা এত বড় না হলেও ফ্যাসিলিটি ভালো। কিন্তু সাবান, শ্যাম্পু তোয়ালে নিয়ে যেতে হবে। এরা কিচ্ছু দিবে না আর কিনতে ও পারবেন না আশে পাশে থেকে।

Tourplacebd.com