প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা প্রাচীন মসজিদ নয়াবাদ

প্রাচীন মসজিদ (নয়াবাদ) বাংলাদেশের রংপুর বিভাগে অবস্থিত একটি প্রাচীন স্থাপনা। এটি মূলত কাহারোল উপজেলার অন্তর্গত একটি প্রাচীন মসজিদ। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা।

অবস্থান

দিনাজপুর শহর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে কাহারোল উপজেলার নয়াবাদ নামে গ্রামে নয়াবাদ মৌজায় একটি মসজিদ দেখা যাবে। এই স্থপনা নয়াবাদ গ্রামের এক বিচিত্র মসজিদ নামে পরিচিত। চেহেলগাজীর মাযার থেকে ২.৫ কিলোমিটার দূরে নয়াবাদ মসজিদ অবস্থিত। মসজিদটি ঢেপা নদীর পাশে।

বিবরণী

মসজিদটি ১.১৫ বিঘা জমির উপর তৈরি করা হয়েছে। মসজিদটির তিনটি গম্বুজ, তিনটি মেহরাব এবং সামনের দেয়ালে তিন দরজা আছে। এই মসজিদের একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হচ্ছে মসজিদের সামনের দেয়ালে পোড়ামাটির চিত্রফলকে প্রাণীজগতের বিভিন্ন চিত্রের দেখা মেলে। এই ধরণের দারিয়া মসজিদ নামে আরো একটি মসজিদ নবাবগঞ্জ উপজেলায় দেখা যায়। এই দুটি ছাড়া বাংলাদেশে আর কোনো মসজিদে জীবজন্তুর ছবি দেখা যায় না।

ইতিহাস

মসজিদের প্রবেশের করার জন্য যে প্রধান দরজার আছে তার উপর স্থাপিত একটি ফলক থেকে জানা যায় এটি সম্রাট দ্বিতীয় শাহ আলমের রাজত্ব কালে ইংরেজি ১৭৯৩ সালে নির্মাণ করা হয়। সেসময় সেখানকার জমিদার ছিলেন রাজা বৈদ্যনাথ। তিনি ছিলেন দিনাজপুর রাজ পরিবারের সর্বশেষ বংশধর। এলাকার অধিবাসীদের কাছে জানা যায়, ১৮ শতকে কান্তজীউ মন্দির তৈরির কাজে যে মুসলমান স্থপতি ও কর্মীরা আসে তারা এই মসজিদটি তৈরি করেন।তারা পশ্চিমের কোন দেশ থেকে এসে এখানে বসবাস শুরু করেন এবং তাদের নিজেদের ব্যবহারের জন্য এই মসজিদটি নির্মাণ করেন

Tourplacebd.com